সড়ক পরিবহন আইনের সংশোধনের দাবি প্রসঙ্গে যা বলেছেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Sunday, 24 November 2019

সড়ক পরিবহন আইনের সংশোধনের দাবি প্রসঙ্গে যা বলেছেন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী


একুশে মিডিয়া, রিপোর্ট:>>>
সড়ক পরিবহন আইনের সংশোধনের দাবি প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, অপরাধ করলে কত বছর সাজা ও সর্বোচ্চ কত জরিমানা হতে পারে তা আইনে লেখা আছে। এটা কমানোর প্রশ্নই আসে না।=
তিনি বলেন, আইনে সর্বোচ্চটা বলা আছে। বিচারক নির্ধারণ করবেন কোন অপরাধে কী সাজা হবে। এটা বিচারকের এখতিয়ার। আইনের তিনটি ধারা সংশোধন করে জামিনযোগ্য করার দাবির বিষয়ে তিনি বলেন, এটি নিয়ে বড় পরিসরে আলোচনা করা হবে।=
রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে টাস্কফোর্সের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।=
সভা শেষে টাস্কফোর্সের সভাপতি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর রয়েছে; স্থগিত করা হয়নি। শুধু কয়েকটি জায়গায় ৩০ জুন পর্যন্ত সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে।=
সভায় সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণ ও সড়কে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে চারটি কমিটিকে দু’মাস সময় দেয়া হয়েছে। ১১১ দফা সুপারিশ বাস্তবায়নে কর্মপরিকল্পনা তৈরি করতে চারটি কমিটি গঠন করে এ সংক্রান্ত টাস্কফোর্স।=
সড়ক পরিবহন সেক্টরে শৃঙ্খলা আনা ও দুর্ঘটনা নিয়ন্ত্রণে গঠিত শাজাহান খানের নেতৃত্বে গঠিত কমিটি ১১১ দফা সুপারিশ করে। ৫ সেপ্টেম্বর সড়ক নিরাপত্তা কাউন্সিলের সভায় ওই সুপারিশ বাস্তবায়নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে টাস্কফোর্স গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। ১৬ অক্টোবর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে ৩৩ সদস্যের টাস্কফোর্স গঠন করা হয়।=
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কামাল বলেন, চার কমিটি আগামী দুই মাসের মধ্যে সুপারিশ ও অ্যাকশন প্ল্যানসহ প্রতিবেদন জমা দেবে। পরে টাস্কফোর্স কমিটির সভায় আলোচনা করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর করার বিষয়ে তিনি বলেন, আইন স্থগিত করা হয়নি, সবই চলবে। শুধু দু-তিন জায়গায় আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত সময়সীমা বর্ধিত করা হয়েছে।=
তিনি বলেন, কয়েকটি বিষয়ে আমাদের দুর্বলতা রয়েছে। যেমন বিআরটিএ পর্যাপ্ত সংখ্যক লাইসেন্স নবায়ন করতে পারেনি। এর জন্য অ্যাকশন প্ল্যান শুরু করা হয়েছে। বিভিন্ন যানবাহনের আকার নিয়ে যে সমস্যা তা নিরসনে টেকনিক্যাল কমিটি গঠন করা হবে। গাড়ির ট্যাক্স-টোকেন নির্দিষ্ট সময় জমা না দেয়ায় জরিমানা হয়েছে। মালিকরা আবেদন করলে জরিমানা এবারের মতো মাফ করা হবে। এ বিষয়ে অর্থ বিভাগের কাছে সুপারিশ পাঠানো হবে।=
অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা কমাতে কমিটির সুপারিশ বাস্তবায়নে টাস্কফোর্স সময় নষ্ট করছে না।=
সভায় জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব তিনজনকে কো-অপ্ট করা হয়। সভায় চারটি কমিটি গঠন করা হয়। এনফোর্সমেন্ট সংক্রান্ত সুপারিশ বাস্তবায়ন ও ট্রাফিক ম্যানেজমেন্ট সংক্রান্ত জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিবকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়।=
সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ সংশ্লিষ্ট সুপারিশ বাস্তবায়নে সড়ক বিভাগের সচিব, সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক প্রচারণা ও গণসচেতনতা বিষয়ক সুপারিশ বাস্তবায়নে তথ্য সচিব এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ সংশ্লিষ্ট সুপারিশ বাস্তবায়নে স্থানীয় সরকার সচিবকে প্রধান করে কমিটি করা হয়েছে।=
বৈঠকে বিশিষ্ট কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ, বুয়েটের শিক্ষক ড. শামসুল হক ও বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।=




একুশে মিডিয়া/এমএসএ=

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages