কুমিল্লায় ছাত্রাবাসের বেলকনি থেকে সাব্বিরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার!পরিবার দিশেহারা! - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Friday, 13 December 2019

কুমিল্লায় ছাত্রাবাসের বেলকনি থেকে সাব্বিরের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার!পরিবার দিশেহারা!


এম এ হাসান, কুমিল্লা:>>>
সন্তান কে সুশিক্ষায় আদর্শ নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার স্বপ্ন নিয়ে কুমিল্লা মহানগরীর ল্যাবরেটারি স্কুলের হোষ্টেলে দিয়েছিলেন পরিবার।কিন্তু আজ আর স্বপ্ন নেই পরিবারে!এক মর্মাহত রহস্যময়  বেদনাদায়ক মৃত্যু কেড়ে নিলো মাত্র ১০ বছর বয়সের ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রের প্রাণ।বলতেছিলাম সাম্প্রতিক সময়ে ঘটে যাওয়া রহস্যময় এক হৃদয় মর্মাহত মৃত্যুর ঘটনা।
নগরীর কোটবাড়ি এলাকার গভর্নমেন্ট ল্যাবরেটরি হাই স্কুলের একটি ছাত্রাবাস থেকে শাহাদাত হোসেন সাব্বির (১০) নামে এক ছাত্রের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে জেলার সদর দক্ষিণ থানার আওতাধীন কোটবাড়ি পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা লাশটি উদ্ধার করে। পরে ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।
সাব্বির কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের যশপুর গ্রামের কৃষক হুমায়ুন কবির মোল্লার ছেলে।সন্তানের এমন অনাকাঙ্ক্ষিত মর্মাহত বেদনাদায়ক মৃত্যু কিছু তে মানতে রাজি নয় পরিবার,স্কুলের শিক্ষার্থীরা জানায়, সাব্বির এ বছর ওই প্রতিষ্ঠানের প্রাইমারী শাখা থেকে পিএসসি পাশ করে। বর্তমানে ওই স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্র তার বড় ভাই শাখাওয়াত হোসেন সৈকতের সঙ্গে ছাত্রাবাসে থেকে ৬ষ্ঠ শ্রেণির ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিল।২৪ ডিসেম্বর তার ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।
বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় খেলতে গিয়ে ছাদের বেলকনির বাইরে পাইপের সঙ্গে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান হোস্টেলের ছাত্ররা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।নিহত ওই ছাত্রের পরিবারের সদস্যরা জানান,আমরা খবর শুনে ঘটনা স্থলে এসে অন্য ছাত্রদের কাছ থেকে জেনেছি, বৃহস্পতিবার সকালে ক্রিকেট বল নিয়ে ছাত্রাবাস থেকে খেলতে বের হয় সাব্বির। আর খেলতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে ছাত্রাবাসের সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষ তাকে অনেক মারধর করেছে।
মারধরের পর তাকে বলেছে জামা-কাপড় ব্যাগে ভরে বাড়ি চলে যেতে। এরপর থেকেই তাকে ছাত্রাবাসে দেখতে পায়নি সহপাঠীরা। পরে বিকেলে তার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায় অন্য ছাত্ররা।সাব্বিরের চাচা ওমর ফারুকের দাবি করে বলেন, এতো ছোট বয়সে সাব্বির কেন আত্মহত্যা করবে? আর যদি আত্মহত্যা করেও থাকে, তাহলে তাকে আত্মহত্যা করার মতো পরিস্থিতি কারা তৈরি করে দিয়েছে? আমরা সঠিক তদন্তের মাধ্যমে এই ঘটনার বি’চার ও দো’ষীদের শা’স্তির দাবি জানাচ্ছি। আর সামান্য খেলতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে এভাবে ছাত্রকে নির্যাতন করাও অপরাধ।
যার শেষ প’রিণতি সাব্বিরের লাশ!এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কোটবাড়ি পুলিশ ফাঁ’ড়ির ইনচার্জ ওসি নাজমুল হুদা বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ঘটনাটি আত্মহত্যা। তবে ময়না তদন্ত প্রতিবেদনে মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে। আর খেলতে যাওয়াকে কেন্দ্র করে সকালে ছাত্রাবাস কর্তৃপক্ষ তাকে শা’সন করেছে বলে যেই খবর পাওয়া গেছে, সেটাও তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।তদন্তে ঘটনার সত্যতা পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আ’ইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages