বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তিকারী এখন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Saturday, 20 June 2020

বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তিকারী এখন কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার

একুশে মিডিয়া, কক্সবাজার রিপোর্ট:
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে কটুক্তির অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ময়মনসিংহ কবি নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে চাকুরিচ্যুত খন্দকার এহসান হাবীবকে সস্পূর্ণ অবৈধভাবে কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির রেজিস্ট্রার হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।
কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সাবেক চেয়ারম্যান সালাহ উদ্দিন আহমদ সিআইপি ইউজিসির নিয়োগ বিধিমালার তোয়াক্কা না করে কোন সার্কুলার ও নিয়োগ পরীক্ষা ছাড়া এত বড় একটা পদে বিতর্কিত এ লোককে নিয়োগ প্রদান করায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারি এবং জেলার সর্বস্তরের সুধীমহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গভীর ক্ষোভ প্রকাশ করে চলেছে।
২০১৯ সালে তথ্য গোপন করে প্রথমবার নিয়োগপ্রাপ্ত ডেপুটি রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান হাবীবকে নিজের ব্যাপারে তথ্য গোপন করার দায়ে ট্রাস্টি বোর্ডে জবাবদিহিতার মুখোমুখি করা হলে তিনি কোন সদুত্তর দিতে না পেরে গত ২৮.০২.২০২০ তারিখ পদত্যাগপত্র দাখিল করেন।
অতঃপর সালাউদ্দিন সাহেব সম্পূর্ণ অন্যায়ভাবে দুইটি মামলায় অভিযুক্ত ও ময়মনসিংহ কবি নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে বরখাস্তকৃত শিক্ষার্থীদেরকে গরু আখ্যা দানকারী সেই দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাকে পূনরায় ডেকে এনে গত ০১.০৬.২০২০ ইং তারিখ সরাসরি রেজিস্ট্রার পদে নিয়োগ প্রদান করেন, যা জেলার সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের জন্য অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক ঘটনা।
সালাউদ্দিন সাহেবের সাথে বিতর্কিত এহসান হাবীবের এ অন্তরঙ্গতার কী কারণ যে কারণে তিনি কোন নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে একক সিদ্ধান্তে অবৈধভাবে তাকে জামাই আদর করে পুনরায় নিয়োগ দিয়েছেন! অথচ বিতর্কিত এ কর্মকর্তার নানান কর্মকান্ড নিয়ে জাতীয় দৈনিক পত্রিকা ও টিভি মিডিয়ায় একাধিক সংবাদ পরিবেশিত হয়েছে। ০৬.০২.২০১৭ তারিখের দৈনিক সমকাল তাদের প্রতিবেদনে এ কর্মকর্তা সস্পর্কে লিখেছে, "ফেসবুকে সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করার দায়ে আন্দোলনের মুখে ময়মনসিংহের ত্রিশালের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান হাবিবকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।
এ ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ নেতাদের বিরুদ্ধে কটূক্তি করায় তথ্য প্রযুক্তি আইনে তার বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়েছে। রোববার বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা এসএম হাফিজুর রহমান জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এহসান হাবিবকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়"। পরবর্তীতে তদন্ত কমিটির রিপোর্ট সাপেক্ষে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হয়েছে। সেখবরও বিভিন্ন মিডিয়ায় ছাপা হয়েছে।
এ কর্মকর্তার নিয়োগে ফেসবুকে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সর্ব স্তরের সুধীমহল। তারা লিখেছেন, জননেত্রীর বিরুদ্ধে অশালীন ভাষা ব্যক্তকারী বহিষ্কৃত লোক কি করে বিশ্ববিদ্যালয়ের মত এত বড় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এত বড় পদে নিয়োগ লাভ করে? উত্তরবঙ্গের এ লোক পর্যটন নগরী কক্সবাজারের উচ্চশিক্ষাকে বাধাগ্রস্থ করার জন্যই নির্লজ্জের মত এ বিশ্ববিদ্যালয়ে বারবার ঘুরেফিরে রয়ে গেছেন গভীর চক্রান্তে সামিল হবার জন্য।
স্বাধীনতা বিরোধী এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে কটুক্তিকারী একজনকে সালাউদ্দিন সাহেব একজন প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা হয়েও কেন মদদ দিচ্ছেন তা কারো বুঝে আসছে না। সবসময় তিনি স্বাধীনতার স্বপক্ষের লোকের কথা বললেও খন্দকার এহসান হাবীবের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম হওয়া রহস্যজনক বলে অনেকে ফেসবুকে মন্তব্য করছেন।
সচেতনমহল অতিসত্বর অবৈধভাবে নিয়োগপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার খন্দকার এহসান হাবীবের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান কক্সবাজার-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম এম.এ. মহোদয় এর হস্তক্ষেপ কামনা করেন।





একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages