বাঁশখালীতে পরকীয়া প্রেমের জের, স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা, ভিকটিমকে উদ্ধার করেছে পুলিশ - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Monday, 22 June 2020

বাঁশখালীতে পরকীয়া প্রেমের জের, স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টা, ভিকটিমকে উদ্ধার করেছে পুলিশ

একুশে মিডিয়া, বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:
চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলায় দক্ষিণ জলদী (৭নং ওয়ার্ডের) আস্করিয়া পাড়া এলাকায় স্বামীর পরকীয়ায় বাধা দেওয়ার জের ধরে স্ত্রীকে হত্যার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে। দীর্ঘ ১৮ মাস যাবৎ পরকীয়ায় আসক্ত বলে জানান, স্ত্রী বুল বুল আক্তার।  
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানাযায়, স্থানীয় আবু ছিদ্দীক মাষ্টারের পুত্র রোকন উদ্দীনের সাথে ২০০৮ সালে সামাজিকভাবে তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয় বর্তমানে তাদের সংসারে ২টি ছেলে ও ১টি কন্যা সন্তান রয়েছে। উক্ত বিবাহের পর দীর্ঘদিন যাবৎ সুখের সংসার অতিবাহীত হলেও বিগত ১৮মাস যাবৎ রোকন উদ্দীন জান্নাতুল মাওয়া গোলাপী নামের এক প্রবাসীর স্ত্রী সাথে আমার স্বামী পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়ায় সংসারে এখন ভাংঙ্গনের সুর বেজে উঠেছে। 
ভীকটিমের স্ত্রী বুল বুল আক্তার জানান, ১৮ মাস জাবত বাড়ীতে সে খুব কম সময় আসত। বাড়ীতে আসলেও আমাকে সে লাটি দ্বারা এলোপাতারী আঘাত করে চলে যায়। গত ১৩ ও ১৫ই জুন আমার স্বামী রোকন উদ্দীন আমাকে অসৎ উদ্দেশ্যে হাত, পা বেধে প্রানে মেরে ফেলার জন্য উপর্যুপুরী মারধর করে ও ঘরে আঠকে রাখে হত্যার চেষ্টা করে। এমনকি আমাকে আমার স্বামী চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ও যেতে দেয় নাই, মারধরের খবর পেয়ে আমার মা বাঁশখালী থানায় এসে আমাকে উদ্ধারের জন্য একটি অভিযোগ দায়ের করিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আমাকে উদ্ধার করে, পরবর্তীতে বাঁশখালী হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা প্রদান করে। 
এ ব্যাপারে বুল বুল আক্তারের মা লায়লা বেগম জানান, আমার মেয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ ছেলে সন্তানের ধিকে থাকিয়ে কষ্ট সহ্য করে আসলেও গত ১৮ মাস যাবৎ আমার মেয়েকে সে অকথ্য ভাষায়, গালি গালাজ ও শাররীক নির্যাতন অত্যাচার করে আসছিল। আমার মেয়ের স্বামীর পরকীয়ার প্রেমের সমস্ত কাগজপত্র আমার মেয়ের কাছে রয়েছে। আদালতের কার্যক্রম চালু হলে তাদের বিরদ্ধে চট্টগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতনের আদালতে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছি।    
এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানার এ. এস. আই নাজমুল জানান, গত ১৫ই জুন বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে ছনুয়া থেকে আগত আস্করিয়া সড়কে বসবাসরত মাষ্টার আবু ছিদ্দীকের পুত্র রোকন উদ্দীনের হাত থেকে ভিকটিমকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করায়, এবং মেয়েকে তার মায়ের নিকট হস্তান্তর করি।




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages