পোর্ট সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের অ্যালামনাইদের ভার্চুয়াল আড্ডা - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Tuesday, 7 July 2020

পোর্ট সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগের অ্যালামনাইদের ভার্চুয়াল আড্ডা

আরাফাত বিন হাসান, চট্টগ্রাম:

করোনা মহামারীতে প্রায় অচল হয়ে পড়েছে পুরো বিশ্ব। আপাতত করোনার বিদায়েরও কোনো লক্ষণ নেই। তাই বিশ্বব্যাপী এই সংকট মোকাবেলার সর্বোচ্চ চেষ্টা চলছে। চেষ্টা চলছে করোনার মধ্যে থেকেও স্বাভাবিক কাজকর্ম চালিয়ে যাওয়ার। এটা অনেকাংশে সহজ করে দিয়েছে অনলাইন প্ল্যাটফর্মগুলো। তাই ঘরবন্দীর এই সময়ে সবাই ঝুঁকছে ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মের দিকে।
দৈনন্দিন যোগাযোগ থেকে শুরু করে খোশগল্প,  সব চলছে এই এই ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মেই।সম্প্রতি চট্টগ্রামের পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করা বর্তমান শিক্ষার্থীরাও যোগ দিয়েছে এমন এক ভার্চুয়াল আড্ডায়।  ‘ইউর ভয়েস ম্যাটার’ শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম জুম’ -এ এই ভার্চুয়াল আড্ডাটির আয়োজন করে পোর্ট সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ।
এসময় সাবেক শিক্ষার্থীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা টুডে নিউজপোর্টাল’এর সাব এডিটর আশরাফুল আলম রবি, ডেইলি সান পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ইয়াসির সিলমি, দৈনিক মানবকণ্ঠ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার তাপস বড়ুযা, দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ইমরান বিন সবুর, নিউজনাউ  নিউজপোর্টালের স্টাফ রিপোর্টার পার্থ প্রতীম নন্দী,ব্যাংকার সামিরা আলীম, ব্যবসায়ী ইয়াসিন আরাফাত মুন্না, সিভয়েস নিউজপোর্টালের রিপোর্টার শাখাওয়াত হোসেন রিমন প্রমুখ।
আড্ডায় শিক্ষকদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগের সম্মানীত চেয়ারম্যান দিলরুবা আকতার,বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান জুয়েল দাস, প্রভাষক সানাউল্লাহ হাসান, আজিজ আহমেদ ও প্রশান্ত কুমার শীল।আড্ডায় যোগ দেওয়া সাবেক শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পসের স্মৃতিচারণ ছাড়াও সদ্য শুরু হওয়া সামার ২০২০ ট্রাইমেস্টারের অনলাইন ক্লাস সম্পর্কে বিভিন্ন মতামত দেন।
বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী এবং বর্তমানে ডেইলি সান পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ইয়াসির সিলমি বলেন, ‘সাংবাদিকতা বিভাগের শিক্ষার্থী হিসেবে যত তাড়াতাড়ি তথ্য প্রযুক্তি সম্পর্কিত ব্যবহারিক জ্ঞান অর্জন করা যাবে ততই মঙ্গল। তাই করোনা সংক্রমণের এই সময়ে অনলাইন ক্লাস বর্তমান শিক্ষার্থীদের জন্য আশীর্বাদস্বরূপ।
এতে এমন কঠিন সময়েও শিক্ষার্থীদের সেশনজটে পড়ার কোনো সম্ভাবনা থাকবে না।’ আড্ডায় যোগ দেওয়া আরেক সাবেক শিক্ষার্থী এবং ঢাকা টুডে নিউজপোর্টাল’এর সাব এডিটর আশরাফুল আলম রবি বলেন, ‘ডিজিটাল মাধ্যমের এই যুগে সরাসরি শ্রেণিকক্ষের ক্লাস আর অনলাইন ক্লাসের মধ্যে গুণগত তেমন পার্থক্য থাকার কথা নয়।
আসলে সময়ের যে চাহিদা তা এড়িয়ে চলা কোনোভাবেই সম্ভব নয়। তাই আমার মনে হয় শ্রেণিকক্ষের ক্লাসের মতো একজন শিক্ষার্থী শিক্ষকের তত্ত্বাবধায়নে বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করে অনলাইন ক্লাস থেকেও কার্যকরী জ্ঞান লাভ করতে পারে।’  পোর্ট সিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ সম্পর্কে সাবেক শিক্ষার্থী এবং দৈনিক পূর্বকোণ পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার ইমরান বিন সবুর বলেন, ‘পিসিআইইউ সাংবাদিকতা  বিভাগে আমূল পরিবর্তন সাধিত হয়েছে। নতুনভাবে আধুনিক সুবিধা সম্বলিত ব্রডকাস্ট স্টুডিও স্থাপন করা হয়েছে।
বিভাগের বর্তমান শিক্ষার্থীদের উচিত এসব সুযোগ-সুবিধার সঠিক ব্যবহার করে নিজেদেরকে সমৃদ্ধ আগামীর জন্য তৈরি করা। যাতে তারা কর্মক্ষেত্রে নিজেদেরকে যোগ্য প্রমান করতে পারে।
এসময় বিভাগের সভাপতি দিলরুবা আক্তার বলেন, করোনা মহামারীর এই সময়ে শিক্ষার্থীরা যাতে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রমে সম্পৃক্ত থাকতে পারে সেজন্য জুম,গুগল ক্লাসরুমসহ অন্যান্য শিক্ষা সহায়ক অনলাইন সেবা কাজে লাগিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য বিভাগের মতো আমরাও শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করছি যাতে শিক্ষার্থীরাও ইতিবাচক সাড়া দিয়েছেন এবং শিক্ষকবৃন্দ নিবিড় পরিচর্যার মাধ্যমে অনলাইনে গুনগত শিক্ষা নিশ্চিত করে পাঠদান করে যাচ্ছেন।
প্রযুক্তির সঙ্গে মানিয়ে জ্ঞানার্জন এবং এ মহামারিতে শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্যের প্রতি গুরুত্ব  দিয়ে অনলাইন কাউন্সলিংও অব্যাহত রেখেছে বিশ্ববিদ্যালয়।’  এছাড়াও সভাপতি এলামনাইদের ধন্যবাদ জানিয়ে বিভাগের অগ্রগতিতে ভ’মিকা রাখতে এবং গণমাধ্যমে কর্মরত শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব পালনে একে অপরকে সহায়তা করার আহবান জানান।
বিভাগের সাবেক সভাপতি ও সিনিয়র লেকচারার জুয়েল দাশ বলেন, ‘অ্যালামনাইরা হচ্ছে একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের শক্তি। তারা এখন বিভিন্ন পেশায় যুক্ত রয়েছে। তাদের সেই অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মাধ্যমে নিজেদের বিভাগের উন্নয়নে তারা গঠনমূলক ভূমিকা রাখতে পারে।’ তিন ঘন্টারও বেশি সময় ধরে চলা এই অনলাইন আড্ডায় অন্যান্য শিক্ষকদের মধ্যে বক্তব্য রাখনে বিভাগের প্রভাষক সানাউল্লাাহ হাসান, প্রশান্ত কুমার শীল এবং আজিজ আহমেদ।
এসময় বিভিন্ন গণমাধ্যমে কাজ করা বর্তমান শিক্ষার্থীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম প্রতিদিনের রিপোর্টার আবু রায়হান তানিন, ডেইলি অবজার্ভারের রিপোর্টার পিম্পল বড়ুয়া, ট্রান্সকন্টিনেন্টাল টাইমসের তানবিরুল মিরাজ রিপন, নাগরিক নিউজের সগীর মাহমুদ, এশিয়ান টিভির অপু ইব্রাহিম, রাইজিং বিডি’র আরাফাত বিন হাসান, অধিকার নিউজের আজম উদ্দিন প্রমুখ।উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে যাত্রা শুরু করে পোর্ট সিটি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। ঠিক একই সময়ে যাত্রা শুরু হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিকতা বিভাগ।
প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আলো ছড়াচ্ছে সাংবাদিকতা বিভাগ। সময়ের হিসেবে বয়স খুব বেশি না হলেও এ পর্যন্ত এই বিভাগ থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করা শিক্ষার্থীদের মধ্যে অন্তত ৩০জন বিভিন্ন জাতীয় ও আঞ্চলিক গণমাধ্যমে কাজ করছে। এছাড়া কর্পোরেট ও  সেবামূলক প্রতিষ্ঠানেও কাজ করছে বিভিন্ন শিক্ষার্থী।
লেখক: শীক্ষার্থী,সাংবাদিকতা ও গণমাধ্যম অধ্যয়ন বিভাগ, পোর্ট সিটি ইন্টার্নেশনাল ইউনিভার্সিটি। 




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages