মাস ব্যাপী করোনার সাথে লড়াই করে নবাবগঞ্জ ইউএনও নাজমুন নাহার এখন সুস্থ্য - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Sunday, 23 August 2020

মাস ব্যাপী করোনার সাথে লড়াই করে নবাবগঞ্জ ইউএনও নাজমুন নাহার এখন সুস্থ্য

মোঃ মামুনুর রশিদ, নবাবগঞ্জ,  (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
কোভিড ১৯ আক্রান্ত  রোগীর  সংখ্যা  ক্রমশ  দিনদিন বাড়ছে আবার  মহ মহান  আল্লাহ তায়ালার  বিশেষ  রহমতে  ভালো হচ্ছে অনেকে। 
সারাদেশের ন‍্যায় দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে  এ পর্যন্ত  করোনা সনাক্ত  ২১ তারিখ  পর্যন্ত  ১৩১ জন আর  নবাবগঞ্জ উপজেলা  নির্বাহী  অফিসার  ও উপজেলা  পরিষদের  মহিলা  ভাইস  চেয়ারম্যান  পারুল বেগম  নবাবগঞ্জ  উপজেলা  পরিষদের চেয়ারম্যান  মোঃ আতাউর রহমানের  স্ত্রী মোছাঃ শেফালী  বেগম  ও তার মেয়ে  আসমাউল হোসনা (পপি) সহ সুস্হ‍্য হয়েছেন  ৮৮ জন,। মৃত্যু  হয়েছে  ২জন।    
বলে তথ‍্যটি নিচ্ছিত করেছেন  নবাবগঞ্জ  উপজেলা  স্বাস্হ‍্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা  ডাঃ শাহাজান আলী।
প্রথম দিক থেকেই  উপজেলা  নির্বাহী  অফিসারের  সব সময় পদক্ষেপ  ছিল বলিষ্ট।  এক পর্যায়ে  তিনি ওতার  ছোট সন্তান  সহ গৃহ  পরিচারিকাও আক্রান্ত  হয়েছিলেন  এখন তিনি  করোনা মুক্ত।
 সুস্হ‍্য হয়ে উপজেলা  নির্বাহী  অফিসার   সামাজিক  যোগাযোগ  মাধ্যমে  যা লিখেছেন  তা   সংযোন করা হলো।
পরপর তিনবার পজিটিভ রিপোর্ট পাবার পর আজ নেগেটিভ শব্দটি শুনতে পেলাম যার জন্য আমি গত একমাস ধরে অপেক্ষা করছি। মহান আল্লাহর নিকট হাজার হাজার শুকরিয়া, করোনার সবধরনের  উপসর্গ ছিল এবং ইনহেলারও নিতে হয়েছিল বেশ কিছুদিন কারণ শ্বাসকষ্ট ছিল। শুরুতে অত্যন্ত চিন্তিত ছিলাম কারণ কলিজার টুকরা ছেলেমেয়ের দুটোর জন্য। মেয়েও কোভিড পজিটিভ ছিল, আল্লাহর অশেষ রহমতে১৪দিন পর সে নেগেটিভ হয়।অনেক ব্যস্ত থাকার পরও সার্বক্ষণিক সাহস দিয়েছেন যোগাযোগ করেছেন পরম শ্রদ্ধেয় সম্মানিত জেলা প্রশাসক জনাব মাহমুদুল আলম স্যার ডি সি  দিনাজপুর স্যার এজন্য আমি স্যারের কাছে অত্যন্ত কৃতজ্ঞ।
সার্বক্ষণিক খোঁজ নিয়েছেন এবং সবধরনের সহযোগিতা করেছেন আমাদের এই আসনের জনদরদী মাননীয় সংসদ সদস্য এম পি জনাব মোঃ শিবলী সাদিক স্যার আপনি একজন উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর জন্য যা করেছেন তা আসলে আশাতীত  আমি আপনার কাছে ঋণী।
এই দিনাজপুর জেলায় দায়িত্বপ্রাপ্ত বাংলাদেশ সরকারের সম্মানীয় সচিব মোঃ নুরুল ইসলাম স্যার, স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয় এর যুগ্মসচিব সায়লা স্যার,হুমায়ুন স্যার,ওয়াদুদ স্যার নীলফামারীর ডিসি স্যার,মোতালেব স্যার,আমার শ্রদ্ধেয় বজলুর  রশিদ বাবুল স্যার আমার খোজখবর নিয়েছেন। 
নবাবগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সম্মানিত চেয়ারম্যান  জনাব মোঃআতাউর রহমান  সার্বক্ষণিক খোজ নিয়েছেন ।সকল এ ডি সি দিনাজপুর   স্যারসহ দিনাজপুর এ কর্মরত আমার জুনিয়র সহকর্মী, ব্যাচমেট, সিনিয়র স্যাররা সহ অন্যত্র কর্মরত আমার প্রিয় অনেক ব্যাচমেট এবং অনেক সিনিয়র স্যার, আত্মীয় স্বজন বন্ধুবান্ধব, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ, সাংবাদিক বৃন্দ খোজ নিয়েছেন সবার প্রতি আমি কৃতজ্ঞ।
আমার সুস্থতার জন্য বিভিন্ন মসজিদ ও মন্দিরে দোয়া ও প্রার্থনা করেছেন জাতির সূর্যসন্তান বীর মুক্তিযোদ্ধাগন,এলাকার বিশিষ্টজন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, এলাকার সাধারন জনগণ  এ ভালোবাসা অপার্থিব, কখনো ভুলবার মত নয়। যাদের কাছে আমি বিশেষভাবে ঋণী ইউ এইচ এফ পিও ডাঃ শাহজাহান  আরএমও ডাঃসাফা নিয়মিত খোজ নিয়েছেন, সাহস যুগিয়েছে,বিভিন্ন সময় আমার পছন্দের খাবার নিয়ে এসেছেন  পরামর্শ দিয়েছেন বুঝতেই দেয়নি আমি করোনা আক্রান্ত।এসিল্যান্ড   আঃ আল মামুন আমি সত্যি ভাগ্যবান তোমার মতো এতো ভালো একজন ছোট ভাই পেয়ে আমার পরিবারে সদস্যেরমত সবসময় পাশে থেকেছো।
চেয়ারম্যান সায়েম সবুজ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার  শুভ্র প্রকাশ চক্রবর্তী তথ্যসেবা অফিসার করোনা আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা আছে জেনেও আমার চিকিৎসার জন্য আমার সাথে মেডিক্যাল কলেজে গিয়েছিলেন সাথে ছিলেন আপনারা আসলে আত্মার  আত্মীয়।
উপজেলার সকল  কর্মকর্তা খোজ নিয়েছেন। উপজেলা মহিলা ভাইস  চেয়ারম্যান মোছাঃ পারুল বেগম আল্লাহ আপনার ভালো করুক সাহস যুগিয়েছেন পাশে থেকেছেন।পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধি  রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সাংবাদিকবৃন্দ এ এস এম আলমগীর ফ্রুটস বাস্কেট এর জন্য ধন্যবাদ।
হাসিম এম রুহুল আমিন হাফিজুর রহমান ওয়ায়েস কুরুনি  সাধারন জনগন খোজ খবর নিয়েছেন। আমার অনেক বন্ধু,উপজেলার অনেকেই  নিজেদের ফেসবুক ওয়ালে আমার জন্য দোয়া চেয়েছেন। অনেক বন্ধু ফোন করেছেন খোজ নিয়েছেন, অনেকের ফোন ধরতে পারিনি দুঃখিত ।আমার আগের কর্মস্থল এর অনেক অফিসার, চেয়ারম্যান শুভাকাঙ্ক্ষী খোঁজ নিয়েছেন দেখা করতে এসেছিলেন সেজন্য কৃতজ্ঞ। 
যাদের কথা না বললেই নয় আমার ৯,১,৫,৩ নাম্বার চেয়ারম্যান পিআইও, সামাজসেবা অফিসার,কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে বাসায় আমার সাথে দেখা করার জন্য নিয়মিত  আসতেন  কোন কিছুর বিনিময়ে এর প্রতিদান দেয়া সম্ভব নয়। আমার মা,ভাই, বোন সহ আত্নীয় স্বজন, শ্বশুড়, শ্বাশুড়ী অনেকেই অনেক চিন্তিত ছিলেন এবং নিয়মিত, বারবার যোগাযোগ করেছেন।
আমার জীবনসাথী  মাহমুদুল হাসান বারবার দূরে থাকতে বলার পরও, নিষেধ করার পরও কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে সবসময় আমার সেবাযত্ন করেছ,খোঁজ নিয়েছ,দূরত্ব বজায় রেখে আমার সাথে গল্প করেছ সাহস যুগিয়েছেন।  আরো অনেকেই খোজ নিয়েছেন অনেকের নাম উল্লেখ করতে পারলাম না।যখনই বলেছি রাত অথবা দিন ঔষধ নিয়ে এসেছেন ধন্যবাদ ফারুক. নৈশপ্রহরী মামুন, মালি শফি বাসার বুবুরা, জাকির, সাদেক সাহেব,হালিম,হাবিব, শরিফুল এমন  স্বাভাবিক আচরন করেছে আমাকে বুঝতে দেয়নি যে আমি অসুস্থ। 
আমি সকলের প্রতি অত্যন্ত কৃতজ্ঞ। আপনাদের ভালোবাসা সত্যিই অকল্পনীয়, অপার্থিব। আমার স্মৃতিতে অমলিন হয়ে থাকবে আমৃত্যু। সবার জন্য নিরন্তর শুভকামনা।
 
 
 
 
 
 
একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages