বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে এক শিশু নিখোঁজ - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Saturday, 5 September 2020

বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে এক শিশু নিখোঁজ

সৈকত আচার্য‌্য, ব‌িশ‌েষ প্রতি‌বেদক: 

বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়া চ্যানেলে ফাড় জাল বসিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার ছনুয়া এলাকার বাচ্চু মিয়া (১২) নামে এক শিশু নিখোঁজ রয়েছে। সে ওই এলাকার  খুদুকখালী গ্রামের সরোয়ার আলমের ছেলে। শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত ৯ টার দিকে বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় তাদের মাছ ধরার ডিঙি বোট ডুবে গিয়ে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। এ ব্যাপারে বাঁশখালী থানায় নিখোঁজ শিশুর মা মরতুজা বেগম বাদী হয়ে একটি সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেছেন। স্থানীয়রা ৩টি ফিশিং ট্রলার নিয়ে বাচ্চু মিয়ার সন্ধান চালালেও এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত (শনিবার সন্ধ্যা ৭ টা) নিখোঁজ শিশুটির সন্ধান পাওয়া যায়নি বলে জানা যায়। 

জানা যায়, ছনুয়া ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড খুদুকখালী গ্রামের আবদুর রহিম প্রকাশ ভেট্টাইয়ার ছেলে মো. মানিক ছনুয়া খুদুকখালী লঞ্চ ঘাট থেকে কুতুবদিয়া চ্যানেলের অদূরে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরার ডিঙি বোট নিয়ে ফার জাল বসানোর জন্য বাচ্চু মিয়া সহ অপর এক জেলেকে সাথে নিয়ে যায়। শুক্রবার রাতে বিপরীত দিক থেকে আসা অপর একটি বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় এই ডিঙি বোটটি ডুবে গেলে মানিকসহ অপর একজন সাঁতরিয়ে অন্য একটি বোটের সহযোগিতায় কূলে ফিরে আসলেও বাচ্চু মিয়া পানিতে তলিয়ে যায়। কূলে ফিরে আসা মানিক জানান, ‘শুক্রবার রাতে বঙ্গোপসাগরে ফার জাল বসাতে গিয়ে বালুবাহী ট্রলারের ধাক্কায় আমাদের ডিঙি বোটটি উল্টে যায়। এ সময় আমরা সাতার কেটে কূলে ফিরে আসলেও বাচ্চু মিয়া পানিতে ডুবে যায়।’

ছনুয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. হারুনুর রশীদ বলেন, ‘শুক্রবার ছনুয়া লঞ্চঘাট থেকে সাগরে ডিঙি নৌকা নিয়ে মাছ ধরতে গিয়ে বাচ্চু মিয়া নামে এক ছেলে নিখোঁজ হয়েছে। গতকাল শনিবার রাত পর্যন্ত তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।’ 

বাঁশখালী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রেজাউল করিম মজুমদার বলেন, ‘ছনুয়া এলাকার বাচ্চু নামে এক ছেলে বঙ্গোপসাগরে মাছ ধরতে গিয়ে নিখোঁজ রয়েছে বলে থানায় একটি ডায়েরী করা হয়েছে। ওই এলাকার জনগণ এবং প্রশাসনের পক্ষ থেকে ছেলেটিকে উদ্ধারের জন্য তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে তিনি জানান।’


একু‌শে মি‌ডিয়া/এসএ


No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages