নরওয়ের আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল’র অ্যাম্বাসেডর নিযুক্ত হলেন বাংলাদেশী তারিকুল ইসলাম - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Friday, 18 September 2020

নরওয়ের আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল’র অ্যাম্বাসেডর নিযুক্ত হলেন বাংলাদেশী তারিকুল ইসলাম

একুশে মিডিয়া, রিপোর্ট:

তুরস্কে পিএইচডি অধ্যয়নরত বাংলাদেশি মেধাবী তরুণ তারিকুল ইসলাম নরওয়ের আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল ২০২১ (International Student Festival in Trondheim 2021-ISFiT21, Norway) এর অ্যাম্বাসেডর নিযুক্ত হলেন। বহু প্রতিভার অধিকারী এই মেধাবী তরুণের বাড়ি ফেনী জেলার সদর উপজেলার দৌলতপুরে। আগামী ১১ থেকে ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২১ নরওয়ের ট্রন্ডহিম (Trondheim) শহরে আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যালটি অনুষ্ঠিত হবে। বিশ্বের প্রায় ১০০ টি দেশের ৫০০ জন শিক্ষার্থী উক্ত ফেস্টিভ্যালে যোগদানের সুযোগ পাবে।এ উপলক্ষে গত ৩১ আগষ্ট ২০২০ এক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এই চুক্তির ফলে মেধাবী এই তরুণ ISFiT21 এর এম্বাসেডর হিসাবে নিযুক্ত হলেন। নিযুক্ত হয়ে জনাব তারিক বলেন, ISFiT’র সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে আমি অত্যান্ত খুশী ও আনন্দিত। এটি বিশ্বের বৃহত্তম আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল। আমি সত্যিই অভিভূত।

আমি বিশ্বাস করি, ISFiT সারা বিশ্বের সমসাময়িক সমস্যা সমূহের সমাধানের জন্য শিক্ষার্থীদের জাগিয়ে তুলতে ব্যাপক অবদান রাখছে। নিজের কার্যক্রম আরো সমৃদ্ধ করতে এবং শিক্ষার্থীদের আস্থা অটুট রাখবে আশা করি।  শক্তিশালী, ইনসাফ ও শান্তিময় সমাজ নির্মাণে সারা বিশ্বে লিডারশীপ তৈরীতে ISFiT ব্যাপক অবদান রাখার চেষ্টা করছে। আমি বিশ্বাস করি, ISFiT’র সঙ্গী হয়ে শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে সমসাময়িক প্রয়োজনীয় বিষয়ে আলোচনার মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের উন্নয়ন এবং সামাজিক শান্তির পথ প্রশস্ত করতে চেষ্টা চালিয়ে যেতে পারব।

এম্বাসেডর হিসাবে প্রধান দায়িত্ব হল ফেস্টিভ্যালকে প্রমোট করা। ফেস্টিভ্যাল কেন্দ্রিক যাবতীয় কার্যক্রমে নতুন নতুন ধারণা দিয়ে পরিকল্পনায় অংশ গ্রহন করা। এবং শিক্ষার্থীদেরকে ফেস্টিভ্যাল সম্পর্কে সঠিক ধারনা দেওয়া ও প্রয়োজনে তাদের পাশে থাকা।

আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যালে আগামী বছরের থিম “Creating Knowledge” নিয়ে আলোচনা করার জন্য বিশ্বের সকল দেশের শিক্ষার্থীদেরকে আমন্ত্রণ জানান হয়েছে। আবেদনের সময় ৭-২৭ই সেপ্টম্বর ২০২০। তবে বিশ্বব্যাপী পরিস্থিতি এবং COVID-19 এর প্রাদুর্ভাবের কারণে কেবলমাত্র ইউরোপে বসবাসকারী শিক্ষার্থীরা ফেস্টিভ্যালেটিতে অংশ গ্রহণের সুযোগ পাবে। তাই ইউরোপে বসবাসকারী বাংলাদেশী সহ অন্য অন্য দেশের সকল শিক্ষার্থীরা আবেদনের সুযোগ রয়েছে। তবে আশা করা যায় ভবিষ্যতের ফেস্টিভ্যালগুলিতে পূর্বের মত বিশ্বের যে কোন দেশ থেকে আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করতে পারবে।

ট্রন্ডহিম ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল বিশ্বের বৃহত্তম আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল। এটি ১৯৯০ সাল থেকে প্রতি একবছর পরপর অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে। বিশ্বব্যাপী ১০ দিনের ওয়ার্কশপ (প্রায় ১৯টি বিভিন্ন বিষয়), ডিবেট, সংলাপ, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা শিক্ষার্থীদের সামনে নিজের দেশ ও দেশীয় সংস্কৃতি উপস্থাপন করার সুযোগ রয়েছে। ফেস্টিভ্যালে সাধ্যমত বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ ক্রাইসিস সমূহ তুলে ধরা যায়। এবং সারা বিশ্বের মেধাবী শিক্ষার্থীদের একটা মিলন মেলায় পরিনত হয়। এই মুহুর্তগুলো শিক্ষার্থীদের জীবনের একটা অংশ হয়ে থাকে। ফেস্টিভ্যালে যোগ দেয়ার জন্য যাবতীয় খরচ বাবত ISFiT শিক্ষার্থীদের অর্থনৈতিক অবস্থার আলোকে সম্পূর্ণ বা আংশিক স্কলারশিপ প্রদান করে থাকে।

ISFiT বিশ্বের বিভিন্ন দেশের স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশন ও ভলেনটেইয়ারী অর্গানাইজেশনদের থেকে প্রতি এক বছর পর পর একটিকে পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে থাকে তাদের কার্যকর্মের উপর নির্ভর করে। পুরস্কারের নাম হল “স্টুডেন্ট শান্তি পুরস্কার (Student Peace Prize)” গত বছর তা ২০ বছরে পূর্ণ হল। তা শুরু করেছিল ১৯৯৯ সালে।

ISFiT “প্রোজেক্ট ডে” এবং মোমবাতি হাতে “শান্তির হাঁটা” (The walk of peace) র‌্যালীর আয়োজন করে থাকে। একদিন Snow day থাকে, সত্যিই এই মুহুর্ত গুলো উপভোগ করার মত সত্যিই চমৎকার। ISFiT ফেস্টিভ্যালের আসা ও যাওয়া সহ সর্বমোট ১২ দিন শিক্ষার্থীদেরকে নরওয়ের জনগণের বাসায় তাদের সাথে খাওয়া ও থাকার ব্যবস্থা করে দেয়। আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত নরওয়ের ট্রন্ডহিম (Trondheim) শহরটি ঘুরে দেখতে শিক্ষার্থীদের জন্য সকল যানবাহন ফ্রি করে দেয়া হয়।

উল্লেখ যে, জনাব তারিকুল ইসলাম নরওয়ের আন্তর্জাতিক স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যাল ২০১৯ তে অংশ গ্রহণ করার জন্য সম্পূর্ণ স্কলারশিপ সহ মনোনীত হন। তিনি তাতে অংশ গ্রহণ করে এডুকেশান’র ওয়ার্কশপে “বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থার চ্যালেঞ্জ এবং সমাধান” নিয়ে একটি প্রেজেন্টেশান দেন এবং তিনি “মাইগ্রেশন” এর আলোচনায় ও অংশ নিয়ে রোহিঙ্গা বিষয় কথা বলেন। রোহিঙ্গাদের প্রতি বাংলাদেশের সরকার ও জনগনের আন্তরিকতা ও বহি বির্শ্বের কার্যকর্ম তুলে ধরেন। এটিকে সমাধানর জন্য সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। আন্তার্জাতিক এ স্টুডেন্ট ফেস্টিভ্যালে গত বছর ১৪২ টি দেশের ৫২১ জন প্রতিনিধি অংশ নিয়েছে।

ওয়ার্কশপ  ও আলোচনায় অংশ গ্রহন ছাড়াও জনাব তারিকুল ইসলাম বিতর্কে অংশ নিয়েছেন। বিতর্কটি বাংলাদেশী, রাশিয়ান এবং আলজেরিয়ান, ব্রাজিলিয়ান, মঙ্গোলিয়ান শিক্ষার্থীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়েছে: “বিদেশে শিক্ষা গ্রহণের পর শিক্ষার্থীরা দেশে ফিরা বা না ফিরা। রাশিয়ান ও  বাংলাদেশী দল ফিরে যাওয়ার পক্ষে বিতর্ক করেছে এবং জয় লাভ করেছে।

জনাব তারিকুল ISFiT19 এর প্রেসিডেন্ট জনাব টিলার স্টুয়ার্ট ও ISFiT এর সাবেক প্রেসিডেন্ট ও বর্তমান নরওয়ের স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশনের ভাইস প্রেসিডেন্ট ও গবেষক মিস. ক্রিসটিনা সাথে সাক্ষাত করেন। তাদের সাথে বাংলাদেশ ও তুরস্কের স্টুডেন্ট অর্গানাইজেশনের কার্যকর্ম নিয়ে কথা বলেন এবং তাদেরকে বাংলাদেশ ও তুরস্কে পরিদর্শনের জন্য দাওয়াত দেন।

উল্লেখ যে, নরওয়েতে বাংলাদেশের কোন দূতাবাস নাই, তাই তিনি সাধ্যমত বির্শ্বের ৪র্থ ও উইরোপের ২য় এই ধনী দেশের (নরওয়ের) জনগনকে বাংলাদেশ সম্পর্কে তুলে ধরার চেষ্টা করেন।

নরওয়েতে রয়েছে হাজার হাজার নয়নাভিরাম হ্রদ। মনোমুগ্ধকর সৌন্দর্য্যের পাশাপাশি এ সকল হ্রদে পাওয়া যায় ইউরোপের সবচেয়ে সুস্বাদু স্যামন মাছ। নরওয়ে এই সুস্বাদু স্যামন বিশ্বের প্রায় ১০০ টি দেশে রপ্তানি করে থাকে।  

বাংলাদেশি তরুণ গবেষক তারিকুল ইসলাম তুরস্কের সোশ্যাল সাইন্সে পিএইচডি করার পাশাপাশি ইস্তাম্বুলের ইসলামিক ইকোনমিক্স গবেষণা কেন্দ্রে গবেষক হিসাবে কর্মরত আছেন। তিনি বাংলাদেশ স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন ইন তুর্কী (BASAT) এর এক্সিকিউটিভ মেম্বার এবং স্টুডেন্টস অ্যাফেয়ার্স সেক্রেটারী (পুরুষ) হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। এবং তুরস্কের নিউ ওয়ার্ল্ড ফাউন্ডেশনের এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক (President) হিসেবে আছেন।   তিনি আন্তর্জাতিক কনফারেন্স, আন্তর্জাতিক ছাত্রদের ফেষ্টিভল, ইউরোপিয়ান কমিশনের প্রজেক্ট, সামার স্কুলে অংশগ্রহণ ও প্রবন্ধ উপস্থাপনের লক্ষ্যে নরওয়ে, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, ভ্যাটিকান সিটি, স্পেন, বুলগেরিয়া, উত্তর সাইপ্রাস দেশসমূহ ভ্রমণ করেন।





একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages