পলাশে এ এসপির কান্ড সম্পত্তি কিনতে না পারায় ব্যবসায়ীকে ডেকে নিয়ে মারধোর - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Saturday, 14 March 2020

পলাশে এ এসপির কান্ড সম্পত্তি কিনতে না পারায় ব্যবসায়ীকে ডেকে নিয়ে মারধোর


আল আমিন মুন্সী:
"তোর এতো বড় সাহস?,আমি যে  সম্পত্তি কিনার জন্য ঘুরতেছি-তুই সে সম্পত্তি বায়না করার সাহস পাইলি কই?, তোর এতো টাকা আসলো কোথায় থেকে?, কোথায় পেলি সেই সাহস?।
নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে মোরশেদ আহম্মেদ (৪০) নামে এক ব্যবসায়ীকে তুলে নিয়ে মারধোর করার সময় এভাবেই শাসাচ্ছিলেন মোহাম্মাদপুর জোনের সহকারী পুলিশ সুপার (এ এসপি) জ্যোতির্ময় সাহা (অপু)। শনিবার দুপুরে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর এলাকার পলাশ বাজার গ্রামে ওই এ এসপির নিজ বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।
পরে গুরুত্বর আহত অবস্থায় স্থানীয়রা ওই ব্যবসায়ীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আহত  মোরশেদের মাথায় ৭ টি সেলাই দেওয়া হয়েছে বলে জানায় চিকিৎসক। মোরশেদ পলাশ বাজারের একজন কাপড় ব্যবসায়ী।
চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভুক্তভোগি মোরশেদ জানান, গত ১৫ দিন আগে পলাশের সাবেক ইসলাম চেয়ারম্যানের স্ত্রী মরিয়ম বেগমের কাছ থেকে পলাশ বাজার এলাকায় সাড়ে ৬ শতাংশ সম্পত্তি ৪২ লাখ টাকায় কিনার জন্য কথা-বার্তা ঠিক করি।
পরে ওই সম্পত্তি কিনার জন্য দুই ধাপে ২০ লাখ টাকা বায়না করি। আগামী এক মাসের ভেতরে পুরো টাকা পরিশোধ করে ওই সম্পত্তি আমার নামে দলিল করার কথা। কিন্তু আমি জানতাম না যে, এই সম্পত্তির ওপর আগে থেকেই এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহার নজর ছিল।
তিনি এই সম্পত্তি কিনতে চায় এমন কোনো কথা আগে কখনো স্থানীয়দের বা প্রতিবেশিদের কাছে বলেননি। আজ দুপুরে (শনিবার দুপুরে) আমার দোকানে লোক পাঠিয়ে এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহার কথা বলে ওনার বাড়িতে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর প্রথমই এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহা আমাকে বাপ-মা তুলে গালাগালি  শুরু করে।
এক পর্যায়ে আমার গালে থাপ্পড় মারার সাথে সাথে ওনার রুমে থাকা জাকির ও শাহিন নামে দুজন আমাকে কাঠের লাঠি (টেবিল) দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটানো শুরু করে। আমাকে পিটানোর সময় এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহা বলতে থাকেন,  "তোর এতো বড় সাহস?,আমি যে  সম্পত্তি কিনার জন্য ঘুরতেছি-তুই সে সম্পত্তি বায়না করার সাহস পাইলি কই?, তোর এতো টাকা আসলো কোথায় থেকে?, কোথায় পেলি সেই সাহস?। একপর্যায়ে  আমি অজ্ঞান হয়ে যাই। এরপর জ্ঞান ফিরলে দেখি আমি হাসপাতালে ভর্তি । মোরশেদের মামা মোহাম্মদ টিটু মোল্লা জানান,
মোরশেদকে এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহার বাড়িতে আটকে রেখে মারধোর করছে এমন খবর পেয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে অজ্ঞান অবস্থায় এ এসপির বাড়ি থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসি। বিষয়টি থানা পুলিশকে অবগত করা হয়েছে। আমরা আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নরসিংদীর এসপিকেও অবগত করেছি।
এ বিষয়ে কথা বলার জন্য এ এসপি জ্যোতির্ময় সাহা অপুর ব্যক্তিগত মুঠোফোনে কল দিলে অপুর খালাত ভাই পরিচয় দিয়ে রনি নামের এক যুবক ফোন রিসিভ করে জানান, ওনি ঘুমাচ্ছেন। ওনার সাথে কথা বলতে হলে ২ ঘন্টা পর কল দিন।
এ ব্যাপারে পলাশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মো. নাসির উদ্দিন জানান, পলাশ বাজারের এক ব্যবসায়ীকে পিটানোর খবর পেয়ে হাসপাতালে থানা পুলিশকে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।





একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages