দোরাবাজারের অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দায়িত্ব গাফিলতির অভিযোগ - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Thursday, 27 August 2020

দোরাবাজারের অগ্রণী ব্যাংকের কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দায়িত্ব গাফিলতির অভিযোগ

একুশে মিডিয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:
সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজারের অগ্রণী ব্যাংকের শাখা থেকে প্রতারক চক্র হাতিয়ে নিয়েছে সাড়ে ৮ লাখ টাকা। ঘটনা পর থেকেই সাধারণ মানু‌ষের মধ্যে বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে। প্রতারক চক্র কর্তৃক টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পেছনে অগ্রণী ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখার কর্মকর্তাদের ভূমিকা নিয়েও রহস্য সৃষ্টি হয়েছে। কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে দায়িত্ব গাফিলতির অভিযোগ তুলছেন খোদ অগ্রণী ব্যাংকের স্থানীয় সেবাগ্রহিতারা।
জানা যায়, গতকাল ২৬ আগস্ট বুধবার দুুুপুরের দিকে ব্যাংক কর্মকর্তার স্বাক্ষর জালিয়াতি করে ৩টি চেকে সর্বমোট সাড়ে ৮ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় প্রতারক চক্র। এর আগে গত ১৬ আগস্ট দোয়ারাবাজারের অগ্রণী ব্যাংকের শাখায় ভুয়া কাগজপত্র এবং ভুয়া তথ্য দিয়ে ৩ হাজার টাকা জমা রেখে একটি একাউন্ট খোলা হয়।
ওই একাউন্ট হোল্ডারের নাম দেয় মো. ফারুক মিয়া, পিতা- কাদির মোল্লা, মাতা- মোছাঃ মেহেরজান, গ্রাম- ভবানীপুর, ইউনিয়ন- দোহালিয়া এবং নমিনি দেওয়া হয় মো. আরিফ মিয়া নামে তার এক সহযোগীকে ভাই পরিচয়ে। ব্যাংকে একাউন্ট খুলতে এনআইডি ভেরিফিকেশন করার বাধ্যবাধকতা থাকলেও ওইদিন প্রতারক চক্রের একাউন্টটি কোনোধরনের এনআইডি ভেরিফিকেশন ছাড়াই খোলা হয়েছে বলে জানা গেছে। একাউন্ট খোলার পরদিনই গত ১৭ আগস্ট ওই একাউন্টে ঢাকার সাভার থেকে অনলাইনে জমা হয় ১০ হাজার টাকা। এক সপ্তাহ পরে গত সোমবার (২৪ আগস্ট) ব্যাংক থেকে চেকবই উত্তোলন করে ওই দিনই একাাউন্ট খোলার সময় জমা রাখা ৩ হাজার ও সাভার থেকে অনলাইনে জমা হওয়া ১০ হাজারসহ একাউন্ট থেকে সর্বমোট ১৩ হাজার টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায় চক্রটি। এর মাত্র দুইদিন পর গত ২৬ আগস্ট বুধবার ব্যাংকের একই হিসাবের ০২০০১৫৬৬৮৯৬৯ নম্বর একাউন্ট থেকে পর পর তিনটি চেকের মাধ্যমে সাড়ে ৮ লাখ টাকা উত্তোলন করে নিয়ে যায় প্রতারক চক্রটি।
ব্যাংকের একাউন্ট কোনো টাকা না থাকলেও শূন্য একাউন্ট থেকে একই সময়ে পর পর তিনটি চেকে সাড়ে আট লাখ টাকা উত্তোলনের বিষয়টি নিয়েও খটকা তৈরি হয়েছে। ব্যাংক থেকে টাকা প্রদান করার সময় গ্রাহকের ব্যাংক একাউন্ট যাচাই করার বাধ্যবাধকতা থাকলেও ঘটনার দিন টাকা উত্তোলনের সময় ওই প্রতারক চক্রের ব্যাংক একাউন্ট যাচাই করা হয়নি বলে জানা গেছে। এনআইডি ভেরিফিকেশন ছাড়াই একাউন্ট খোলা এবং একাউন্ট যাচাই করা ছাড়াই টাকা প্রদানে অগ্রণী ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখার দায়িত্বশীলদের ভূমিকা রহস্যজনক মনে করছেন অনেকেই। এঘটনায় গতকাল বুধবার বিকেলে অগ্রণী ব্যাংক লিমিটেডের অঞ্চল প্রধান মো. আশিক এলাহি সরেজমিনে ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখা পরিদর্শন করেছেন।
মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে অগ্রণী ব্যাংকের দোয়ারাবাজার শাখার ম্যানেজার মো. জিয়াউল ইসলাম জানান,১৬ আগস্ট তিনি ছুটিতে ছিলেন। তার অনুপস্থিতে ওইদিনই একাউন্টটি খোলা হয়। গত বুধবার ব্যাংকের আয়োজনে ত্রাণ বিতরণে উপজেলা অডিটোরিয়ামে উপস্থিত ছিলেন তিনি। এই সুযোগে প্রতারক চক্র টাকাগুলো ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে উত্তোলন করে নিয়ে যায়।
 
 
 
 
একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages