দোয়ারাবাজারের নতুন মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন যারা - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Sunday, 19 January 2020

দোয়ারাবাজারের নতুন মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতি পেলেন যারা


একুশে মিডিয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:>>>
দুই বছর ধরে কয়েক দফা যাচাই-বাছাই শেষে সারা দেশের এক হাজার ৩৭৯ জন মুক্তিযোদ্ধাকে নতুন করে রাষ্ট্রীয় স্বীকৃতি দিতে যাচ্ছে সরকার। এরমধ্যে ঢাকা বিভাগে ৪৫১, চট্টগ্রামে ৩২৪, রাজশাহীতে ১৯৯, ময়মনসিংহে ৫৬, সিলেটে ১৭৯ ও রংপুর বিভাগে ১০৬ জন। এরা প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা হলেও এতদিন তাদের নাম গেজেটভুক্ত হয়নি।
তাদের নামে ইস্যু করা হয়নি সনদ। ফলে তারা সরকারি কোনো সুযোগ-সুবিধা পাননি। উপজেলা পর্যায়ে যাচাই-বাছাই কমিটির সুপারিশের পর এবার তাদের নাম গেজেটভুক্তির সুপারিশ করেছে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল (জামুকা)। ১০ ডিসেম্বর জামুকার ৬৬তম বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। শিগগিরই এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করবে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়। এখন পর্যন্ত খুলনা ও বরিশাল বিভাগের তালিকা চূড়ান্ত হয়নি। এসংক্রান্ত কাজ শেষ হলেই দুই বিভাগের নাম প্রকাশ করা হবে। খবর সংশ্লিষ্ট সূত্রের।
এ প্রসঙ্গে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী ও জামুকার চেয়ারম্যান আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘উপজেলা কমিটির যাচাই-বাছাই শেষে জামুকার সুপারিশের ভিত্তিতে প্রথম দফায় এক হাজার ৩৭৯ জনকে মুক্তিযোদ্ধার গেজেট করার সিদ্ধান্ত হয়েছে। শিগগিরই এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হবে। এরপরই তা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।’

জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেটভুক্তির জন্য ২০১৪ সালের অক্টোবর পর্যন্ত অনলাইনে এক লাখ ২৩ হাজার ১৫৪ জন এবং সরাসরি ১০ হাজার ৯০০ জন আবেদন করেছিলেন জামুকায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে সারা দেশের ৪৭০টি উপজেলা/জেলা/মহানগর কমিটি গঠন করে মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই শুরু হয়। ৪৭০টি কমিটির মধ্যে ৩৮৫টি তাদের প্রতিবেদন জমা দিলেও, সদস্যদের দ্বন্দ্ব এবং আদালতে মামলা থাকায় ৮৫টি কমিটি কাজ করতে পারেনি। উপজেলা কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে ফের জামুকায় অধিকতর যাচাই-বাছাই করতে প্রতি বিভাগে উপকমিটি করা হয়। এ উপকমিটির সুপারিশের আলোকে প্রথম দফায় এক হাজার ৩৭৯ জনকে গেজেটভুক্ত করার সুপারিশ করেছে জামুকা। অবশ্য সুপারিশপ্রাপ্তদের অনেকে ইতিমধ্যে মারা গেছেন। তবে মন্ত্রণালয় বলছে, স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ব্যক্তির অবর্তমানে তাদের পরিবারের সদস্যরাও মুক্তিযোদ্ধা ভাতাসহ সব সুযোগ-সুবিধা প্রাপ্য হবেন।
দোয়ারাবাজার উপজেলার মো.আব্দুল খালেক, মো. আবু বকর ছিদ্দিক, মো. শুকুর আলী, মৃত মো. রমিজ উদ্দিন, মৃত সামছুল ইসলাম, মৃত উমেদ আলী, মো. আশক আলী, মো. ছিদ্দিকুর রহমান, আহমদ আলী, মৃত আসেক আলী, মো. আলা উদ্দিন, মৃত আবুল হাসেন খাঁন, মৃত আলাউদ্দিন, মৃত আব্দুল আহাদ, ছোরাব আলী, মৃত মছলন্দর আলী, মৃত ওমর আলী, মো. মন্তাজ, গোলাম মোস্তফা।




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages