পলাশবাড়িতে ইউপি সদস্য কর্তৃক ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে বয়স্ক ভাতা উত্তোলন করে আত্নসাৎ! - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Friday, 1 May 2020

পলাশবাড়িতে ইউপি সদস্য কর্তৃক ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে বয়স্ক ভাতা উত্তোলন করে আত্নসাৎ!

একুশে মিডিয়া, গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ি উপজেলার ৯ নং হরিনাথপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড সদস্য কর্তৃক তালুকজামিরা গ্রামের জনৈক দুস্থ মহিলার নামে বয়স্ক/বিধবা ভাতার তালিকা ভুক্ত করে দীর্ঘ ২ বছর থেকে ভুয়া স্বাক্ষরের মাধ্যমে টাকা উত্তোলন করে আত্বসাতের অভিযোগ  পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে প্রতিকার চেয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে  আবেদন করা হয়েছে।
উক্ত ৯নং হরিনাথপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডস্থ তালুকজামিরা গ্রামের মৃত. খোকা ব্যাপারীর পুত্র তৈয়ব আলী কর্তৃক গত ৩০ এপ্রিল ২০২০ ইং বৃহস্পতিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর দাখিলকৃত অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, উপজেলার ৯নং হরিনাথপুর ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার  শফিকুল ইসলাম অত্র ওয়ার্ডের বিভিন্ন লোকের কাছ থেকে সরকারী বরাদ্দকৃত কার্ড করে দেওয়ার কথা বলে প্রতারনার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১০ জুন ২০১৮ ইং অভিযোগকারীর মা  'তারা মাই' এর কাছ থেকে বয়স্ক ভাতা করে দেবে বলে আইডি কার্ডের ফটোকপি নিয়ে যায়।
আইডি কার্ডের ফটোকপি  নিয়ে যাওয়া অবধি তার মা উল্লেখিত মেম্বারের বাড়িতে দীর্ঘদিন যাবত ঘোরাফেরা করা সত্ত্বেও  তার নামে বরাদ্দকৃত বয়স্ক ভাতার কার্ড দেয়নি। কিন্তু গত কয়েক দিন আগে অভিযোগকারী তৈয়ব আলী লোক মারফত জানতে পারেন- তার মায়ের নামে একটা বয়স্ক ভাতার কার্ড প্রস্তুত হয়েছে। পরে এ বিষয়ে মেম্বারকে বিভিন্ন ভাবে চাপ প্রয়োগ করলে দূর্নীতিবাজ মেম্বার গত ২৮ এপ্রিল ২০২০ইং তারিখে প্রতিবেশী মোখলেছুর রহমানের কাছে দুইটি পাতা ছেড়া অবস্থায় কার্ডটি তার মাকে দিতে বলে চলে যায়। যার কার্ড নং ৮০০৪, হিসাব নং ৭৯০/৭১২। এই বইতে জুলাই ২০১৮ হতে ভাতার টাকা প্রদানের নির্দেশ রয়েছে। 

সুত্র জানায়, যেহেতু জুলাই/১৮ হতে ভাতা প্রদানের নির্দেশনা রয়েছে সেহেতু উক্ত তৈয়ব আলীর মা তারা মাই অদ্যাবধি কোন প্রকার টাকা পায়নি। বইটি নিয়ে ব্যাংকে গেলে জানা যায়, দূর্নীতিবাজ মেম্বার শফিকুল ইসলাম তার সবকটি কোঠার টাকা উত্তোলন করে আত্নসাত করেছে । 
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ইউপি মেম্বার শফিকুল ইসলাম এর মতামত জানার জন্য তার  মোবাইল নং ০১৭৩৯-৩৮২৮১০ একাধিকবার  কল দিলে মোবাইল নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায় আর এ কারণে তার মতামত জানা সম্ভব হয়নি।




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a Comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages