বাঁশখালীতে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে দরিদ্র কৃষকের বসতঘর ও শিম ক্ষেত পুড়ে দেয়ার অভিযোগ ! - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Saturday, 19 December 2020

বাঁশখালীতে জমি বিরোধকে কেন্দ্র করে দরিদ্র কৃষকের বসতঘর ও শিম ক্ষেত পুড়ে দেয়ার অভিযোগ !

একুশে মিডিয়া, বাঁশখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: 

শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) রাতে জায়গা জমির বিরোধকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামের বাঁশখালীর চাম্বল ইউনিয়নের দক্ষিণ চাম্বল গ্রামে এক দরিদ্র কৃষকের বসতঘর ও শিম ক্ষেত পুড়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

দুস্কৃতিকারীদের লাগিয়ে দেয়া আগুনে বসত বাড়ি, আসবাবপত্র ও ক্ষেত পুড়ে আনুমানিক ৩ লাখ টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে।

এব্যাপারে বাঁশখালী থানায় শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) ঘর-বাড়ি হারানো মো. নাছির নামের এক ব্যক্তির দেয়া লিখিত অভিযোগে জানা গেছে, প্রতিবেশি প্রতিপক্ষ শেফাত, আজিজুল হক, জুনাইদ, মো. কালু, এরশাদ, শওকত হোসেন, তুহিন নামের ব্যক্তিরা এ দুঃসাহসিক ঘটনা ঘটিয়েছে।

এদের বিরুদ্ধে থানায় দীর্ঘদিন ধরে সালিসী বৈঠক চলছে। আগামী জানুয়ারীর ১ তারিখও সালিসী বৈঠক রয়েছে। বৈঠকের আগে এ ঘটনা ঘটিয়েছে। উল্লেখ্য, উক্ত প্রতিপক্ষরা ২০১৯ সালের জানুয়ারী মাসেও দা, কিরিচ, লোহার রড দিয়ে আঘাত করে অভিযোগকারী মো. নাছির, তার ভাই জসিম উদ্দিন ও তাদের পিতা মো. আলমগীরকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পঙ্গু করে ফেলেছিল। ওই মামলা এখনও চলমান রয়েছে।

বাঁশখালী থানায় অভিযোগকারী মো. নাছির বলেন,‘ ৩০ শতক জায়গা নিয়ে প্রতিবেশি প্রতিপক্ষ শেফাত, আজিজুল হক, জুনাইদ, মো. কালু, এরশাদ, শওকত হোসেন, তুহিন নামের ব্যক্তিদের সাথে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। ওই বিরোধের জের ধরে গত শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৪টায় প্রকাশ্যে ফলন্ত ২০ শতক জমির শিম ক্ষেত পুড়ে দেয়।

এ ঘটনা পাড়ার নারী-পুরুষ সকলে দেখেছেন।

ওই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতে রাত ৮টায় ওই প্রতিপক্ষ দুর্বৃত্তরা আমার বসত ঘরে আগুন লাগিয়ে দেয়। ওই আগুনে আমার সর্বস্ব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। ঘটানার সময় আমরা বাড়িতে ছিলাম না।’ তিনি আরও বলেন, ‘ প্রতিপক্ষরা প্রভাবশালী হওয়ায় বসতঘর ও ক্ষেত পুড়ে দেয়ার পরও প্রকাশ্যে ঘুরছে এবং আমাকে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে।’ বাঁশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ সফিউল কবির বলেন, ‘ থানায় মো. নাছিরের অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

 

একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages