পলাশবাড়ী’র বখাটে মতিয়ারের অত্যাচারে আমার আর স্কুলে যাওয়া হবে না! - Ekushey Media bangla newspaper

Breaking News

Home Top Ad

এইখানেই আপনার বা প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ: 01915-392400

নিউজের উপরে বিজ্ঞাপন

Monday, 20 January 2020

পলাশবাড়ী’র বখাটে মতিয়ারের অত্যাচারে আমার আর স্কুলে যাওয়া হবে না!


একুশে মিডিয়া, গাইবান্ধা জেলা প্রতিনিধি:>>>
গাইবান্ধা জেলার  পলাশবাড়ী উপজেলায় সাবিনা আকতার নামে এক স্কুল পড়ুয়া দশম শ্রেণির ছাত্রীকে উত্যাক্ত করার অভিযোগ উঠেছে একই গ্রামের মতিয়ার নামে এক বখাটে যুবকের বিরুদ্ধে। এব্যাপারে স্কুল ছাত্রীর অভিভাবক গত ১৯ জানুয়ারী পলাশবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। 
থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ২নং হোসেনপুর ইউনিয়নের করিয়াটা গ্রামের ফজলুল হকের মেয়ে সাবিনা আকতার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বগুলাগাড়ী দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। সাবিনা আকতার বিভিন্ন সময় বিদ্যালয়ে যাওয়া-আসার পথে একই গ্রামের রুহুল আমিনের বখাটে ছেলে মতিয়ার রহমান (২২) দীর্ঘদিন হতে বিভিন্ন সময় উত্যাক্ত ও কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এর ধারাবাহিকতায়  ১৯ জানুয়ারি সকাল ১০ টায় উক্ত স্কুল ছাত্রী সাবিনা আকতার তার বাড়ীর উঠানে দাড়িয়ে থাকা অবস্থায় মতিয়ার সাবিনাকে আবারও কু-প্রস্তাব দেয় এবং কু-প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় মতিয়ার তার যৌন কামনা বাসনা চরিতার্থ করার উদ্দেশ্যে শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দেয়।
এসময় স্কুলছাত্রীর ডাকচিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে লম্পট মতিয়ার সটকে পড়ে।  এবিষয়ে দশম শ্রণীর স্কুল ছাত্রী সাবিনার  চাচা এসএম সেলিম রেজা বাদী হয়ে ১৯ জানুয়ারি রাতে পলাশবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগের ভিত্তিতে আজ ২০ জানুয়ারি বিকাল ৩ টায় পলাশবাড়ী থানার এস.আই সঞ্জয় কুমার সাহা সরেজমিনে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। সরেজমিনে জানা যায়, মেয়েকে সহ তার পরিবারের লোকজনদের বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে।
এব্যাপারে স্কুলছাত্রী সাবিনা সাংবাদিকদের জানান, মতিয়ার আমাকে স্কুলে যাওয়া - আসার পথে প্রায়ই উত্যাক্ত করে।
এ কথা মতিয়ারের বাবা- মাকে বললে, তারাই আমার উপর রাগ হয়ে মারতে আসে। আমি ঠিকমত স্কুল করতে পারছি না বখাটে মতিয়ারের ভয়ে। আমি স্কুলে কিংবা প্রাইভেট পড়তে গেলে রাস্তা মাঝে একা পেয়ে আমার হাত ধরে টানাহেচড়া  করে ঝাপটে ধরে। আর এ কথা কাউকে বললে প্রাণে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দিয়ে চলে যায়। স্কুলছাত্রী সাবিনা জানান, আমার স্কুলে যাওয়া আর হবে না মতিয়ারের উত্যাচারে।
স্কুল ছাত্রীর চাচা সেলিম জানান, মতিয়ার আমার ভাতিজিকে স্কুলে যাওয়া - আসার পথে প্রায়ই উত্যাক্ত করে ও বিভিন্ন ধরনের খারাপ ভাষা প্রয়োগ করে। রাস্তায় একা পেলেই তাকে জাপটে ধরে। আমি এব্যাপারে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।




একুশে মিডিয়া/এমএসএ

No comments:

Post a Comment

নিউজের নীচে। বিজ্ঞাপনের জন্য খালী আছে

Pages